বোস কনফারেন্সে শিক্ষামন্ত্রী : বিজ্ঞানী সত্যেন বোস বাঙালি জাতির গর্ব

Filed under: বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি,সব সংবাদ |

বিজ্ঞানী সত্যেন্দ্র নাথ বোস পদার্থ বিদ্যা ও গণিতে বিশেষ অবদান রেখে গেছেন। তিনি আমাদের বাঙালি জাতির গর্ব।
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ আজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবন মিলনায়তনে বোস সেন্টার ফর অ্যাডভান্সড স্টাডি আয়োজিত ইন্টারন্যাশনাল বোস কনফারেন্সের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বনামধন্য বিজ্ঞানী প্রফেসর হারুন অর রশীদ, প্রফেসর এম মুহতাশাম হোসেন এবং বোস সেন্টারের পরিচালক প্রফেসর শামীমা চৌধুরী বক্তৃতা করেন। কনফারেন্সে দেশি-বিদেশি শতাধিক বিজ্ঞানী, শিক্ষক, শিক্ষাবিদ ও গবেষক উপস্থিত ছিলেন।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন সত্যেন বোস তাঁর সমৃদ্ধ কর্মের মাধ্যমে স্থাপনের মাত্র চার বছরের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে বিশ্বের কাছে পরিচিত করে তুলেছিলেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিদ্যা বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা প্রফেসর। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদানের তিন বছরের মধ্যে ১৯২৪ সালে তিনি ‘গধী চষধহপশ’ং খধি ধহফ খরমযঃ ছঁধহঃঁস ঐুঢ়ড়ঃযবংরং’ শীর্ষক একটি আর্টিকেল লেখেন। নোবেল পুরস্কারপ্রাপ্ত বিজ্ঞানী আইনস্টাইন এ লেখাটির গুরুত্ব অনুধাবন করে তা জার্মান ভাষায় অনুবাদ করেন এবং জার্নালে প্রকাশ করেন। পদার্থ বিজ্ঞানে এটিই বোস-অইনস্টাইন থিওরি নামে খ্যাত।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন বিজ্ঞানী সত্যেন বোস ছোটকাল থেকেই ছিলেন অত্যন্ত মেধাবী। তিনি বিজ্ঞান, রসায়ন, জিওলজি, প্রাণিবিদ্যা, নৃ-বিজ্ঞান, প্রকৌশল বিদ্যায় বিশেষ পড়াশোনা করেছিলেন। মন্ত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, গবেষক ও শিক্ষার্থীদেরকে বিজ্ঞানী সত্যেন বোসের পদাঙ্ক অনুসরণের আহ্বান জানান।