মাদারীপুরে বিপুল সংখ্যক দেশীয় অস্ত্রসহ র‌্যাবের হাতে ইউপি চেয়ারম্যানের ভাতিজা আটক

মাদারীপুর সদর উপজেলার খোয়াজপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী মুন্সীর ভাতিজা প্লাবন মুন্সীকে বিপুল সংখ্যক দেশীয় ধারালো অস্ত্রসহ আটক করেছে র‌্যাব-৮ মাদারীপুর ক্যাম্পের সদস্যরা। উদ্ধারকৃত দেশীয় অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ২২টি রামদা, ২০টি বল্লম, ১২টি টেটা ও ১৫ বেতের তৈরি ঢাল।
স্থানীয় সূত্র জানায়, খোয়াজপুর ইউনিয়নে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিগত এক বছর ধরে ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী মুন্সীর সাথে স্থানীয় বিরোধী পক্ষের বেশ কয়েকবার রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় উভয়পক্ষের লোকজন নিজেদের শক্তি বাড়াতে দেশীয় অস্ত্র সংগ্রহ করে রেখেছিল। এতে ঈদের সময় এলাকায় বড় ধরনের সংঘর্ষের আশঙ্কা ছিল।
র‌্যাব সূত্র জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৮ মাদারীপুর ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ তাজুল ইসলামের নেতৃত্বে মঙ্গলবার দুপুরে খোয়াজপুর এলাকার মঠেরবাজার এলাকার অভিযান চালায়। এ সময় সেলিম মুন্সীর বাড়ি থেকে ২২টি রামদা, ২০টি বল্লম, ১২টি টেটা ও ১৫ বেতের তৈরি ঢালসহ প্লাবন মুন্সীকে (৩০) আটক করা হয়।
র‌্যাব-৮ মাদারীপুর ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম জানান, র‌্যাবের কাছে খবর আসে যে কতিপয় ব্যক্তি দাঙ্গা-হাঙ্গামা করার উদ্দেশ্যে দেশীয় ধারালো অস্ত্র নিয়ে অবস্থান করছে। অভিযানে সেলিম মুন্সীর পাটাতনযুক্ত দোতলা কাঠের ঘরের পাটাতনের উপরে দেশীয় অস্ত্রগুলো পাওয়া যায়। এই ঘটনায় আটক আসামীর বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে।